Main Menu

শুক্রবার, মে ২৪th, ২০১৯

 

আমাদের রোজাগুলো দয়া করে কবুল করে নিন

মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদীঃ রোজার সবচেয়ে বড় আনুষ্ঠানিকতা হচ্ছে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত না খেয়ে থাকা। যদিও না খেয়ে থাকা বা উপবাস করা আর সিয়াম সাধনা এক জিনিস নয়। তারপরও এই না খেয়ে থাকায় রয়েছে অনেক বড় হিকমত। পৃথিবীতে সবচেয়ে বড় কষ্ট হল ক্ষুধার কষ্ট। এই ক্ষুধা নিবারণের জন্যই আমাদের এত পরিশ্রম, এত ছোটাছুটি। পেটপুরে দু’মুঠো খাওয়ার জন্য কী না করে মানুষ। একজন মানুষ যতক্ষণ না নিজে ক্ষুধার জ্বালা সইবে ততক্ষণ পর্যন্ত বুঝবে না ক্ষুধা কী? এ জন্য প্রিন্সিপাল ইবরাহিম খাঁ এক আলোচনায় বলেন, মানুষের ক্ষুধার কষ্ট কী তা বোঝারআরও পড়ুন


বিজেপির নিরঙ্কুশ জয়

স্টাফ রিপোর্টারঃ ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে ভূমিধস বিজয় অর্জন করেছে ক্ষমতাসীন বিজেপির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স তথা এনডিএ। ৫৪৩ আসনের লোকসভায় যে ৫৪২টি আসনে নির্বাচন হয় তার মধ্যে এনডিএ জিততে চলেছে ৩৫০ আসনে। একশ’রও কম আসনে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট। কমপক্ষে ১২টি রাজ্যে কোন আসনই পাচ্ছে না কংগ্রেস এটা নিশ্চিত। এমতাবস্থায় পরাজয় স্বীকার করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। নির্বাচনী ফলাফল পরবর্তী দলীয় অবস্থান জানাতে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে এই হার মেনে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপিকেআরও পড়ুন


নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত কে নিলো?

স্টাফ রিপোর্টারঃ ১৫ মাসেরও বেশি সময় ধরে কারাবন্দি রয়েছেন। চাহিদা অনুয়ায়ী চিকিৎসাও পাচ্ছেন না। ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ায় কোন কিছু খেতেও পারছেন না। কিন্তু এতো কিছুর পরও মনোবলের দিক দিয়ে বিন্দু মাত্র টলানো যাচ্ছে না রাজপথের আন্দোলনে আপসহীন নেত্রীর খেতাব পাওয়া বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে। ২০১৪ সালে যে কারণে নির্বাচন বর্জন করেছিলেন। নিজের শারীরিক অসুস্থতা, কারাবন্দি, দলে নেতাদের নানা নাটকীয় সিদ্ধান্তসহ এতো প্রতিকুলতার মধ্যেও সেই একই কথাতেই অবিচল রয়েছেন তিনি। নিজের নীতিবিরোধী কোনো প্রস্তাবেই রাজী করানো যাচ্ছে না তাকে। গত ১৪ এপ্রিল দলের সিনিয়র তিন নেতাকে সরাসরি না করেআরও পড়ুন


আপনাদের আগমনে গণভবন ধন্য হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এ ধারাটা যেন অব্যাহত রাখতে পারি, সেজন্য সবার দোয়া ও সহযোগিতা চাই। তিনি বলেন, দেশ ও দেশের মানুষের জীবনে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় থাকুক; সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতি ও মাদককের হাত থেকে সমাজ মুক্তি পাক সে চেষ্টাই আমরা করে যাচ্ছি। বৃহস্পতিবার গণভবনে বিচারপতি, কূটনীতিক, সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা, শিল্পী ও সাংস্কৃতিক কর্মীদের সম্মানে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে তিনি একথা বলেন। গণভবনের সবুজ লনে বিশাল প্যান্ডেলে আগত অতিথিদের আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হয়। বিকাল ৬টা ১৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী হাত নেড়ে আগত অতিথিদের অভিবাদন জানান। পরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যেআরও পড়ুন