Main Menu

বুধবার, ডিসেম্বর ২৬th, ২০১৮

 

ভুয়া ওয়েবসাইট চেনার উপায়

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্কঃ বিশ্বব্যাপী ডিজিটাল বিপ্লবের এ সময়ে নতুন শঙ্কার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ভুয়া খবর বা ফেক নিউজ ছড়িয়ে দেয়ার বিষয়টি। যে কোনো আলোচিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভুয়া খবর ভাইরাল হওয়ার ঘটনা নতুন নয়। বাংলাদেশে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে গুজব ছাড়ানো প্রতিরোধে আট সদস্যের মনিটরিং সেল গঠন করেছে নির্বাচন কমিশন। সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে ভুয়া খবর ছড়াতে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক বা প্রতিষ্ঠিত অনলাইন পোর্টালের ওয়েবসাইটের আদলে নকল ওয়েবসাইট তৈরি করছে কুচক্রী মহল। আজকের আয়োজনে কীভাবে অনলাইনে ভুয়া খবর, ছবি এবং ওয়েবসাইট চেনা যায়। দেশে চলছে নির্বাচনী আমেজ। এআরও পড়ুন


আফগানিস্তানের কাবুলে হামলায় নিহত ৪৫

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি সরকারি দপ্তরের কম্পাউন্ডে জঙ্গিদের হামলায় অন্তত ৪৫ জন নিহত হয়েছেন। আফগানিস্তানের কর্মকর্তাদের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সোমবার বিকালে কাবুলের পূর্বাংশে দেশটির সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কম্পাউন্ডে এক গাড়ি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় এক আত্মঘাতী বোমারু, এ সময় স্বয়ংক্রিয় রাইফেলে সজ্জিত অপর হামলাকারীরা শহীদ ও প্রতিবন্ধি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভবনে হামলা চালিয়ে এর কর্মীদের জিম্মি করে এবং তাদের একটি অংশ ওই কম্পাউন্ডের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা বাহিনীগুলোর সঙ্গে বন্দুক লড়াই শুরু করে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াহিদ মাজরোহ জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে এ পর্যন্ত ৪৫টি লাশ ও ১০ জন আহতকে অ্যাম্বুলেন্সআরও পড়ুন


আ’লীগের হামলায় রক্তাক্ত গয়েশ্বর

স্টাফ রিপোর্টারঃ ঢাকা-৩ আসনে বিএনপির গণসংযোগে হামলা হয়েছে। কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়নের শুভাঢ্যা বেগুনবাড়ী এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা-৩ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। হামলায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের মাথা ফেটে গেছে। তাকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের নেতৃত্বে বিএনপি নেতাকর্মীরা বেগুনবাড়ী এলাকায় নির্বাচনী গণসংযোগ করছিলেন। পরিচর্যা ক্লিনিকের সামনে পৌঁছলে শতাধিক লোক লাঠিসোটা হাতে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা বিএনপি নেতাকর্মীদের এলোপাতাড়ি পিটিয়েআরও পড়ুন


রক্তাক্ত নির্বাচনের মাঠ ।। সেনা মোতায়েনের পরও চলছে পুলিশি গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টারঃ সেনাবাহিনী মোতায়েনের পর সহিংসতা বাড়ছেই। রক্তাক্ত হচ্ছে নির্বাচনের মাঠ। মহাজোট ও ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের মধ্যে চলছে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ। নির্বাচনী অফিস ভাঙা পাল্টা ভাঙার মধ্যেই শুরু হয়েছে ব্যাপকভাবে গ্রেফতার অভিযান। গতকাল সারাদেশে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারণার সময় পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঢাকায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরীসহ কয়েকজন প্রার্থীর ওপর আক্রমণ করা হয়। ঢাকা-৯ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী আফরোজা আব্বাস, ঢাকা-৪ আসনের সালাহউদ্দিন আহমদ, চাঁদপুরে ধানের শীষের প্রার্থীকে প্রচারণায় নামতেই দেয়নি পুলিশ। মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের লক্ষীপুর বাজারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী সুলতান মোহাম্মদআরও পড়ুন


কামাল-হুদা বাহাস : ইসির সভা বর্জন ঐক্যফ্রন্টের

স্টাফ রিপোর্টারঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে মাঠের পরিস্থিতি ভয়ংকর খারাপ হয়ে গেছে। ক্ষমতাসীনরা বিরোধীপক্ষের প্রার্থী-কর্মী-সমর্থকদের মাঠেই নামতে দিচ্ছে না। নির্যাতন, নীপিড়ন করে পরিবেশ নষ্ট করে দিচ্ছে। এদের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করছে পুলিশ। সরকারের লাঠিয়াল বাহিনীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে নির্যাতন ও গ্রেফতার করা হচ্ছে। প্রতিকারের আশায় নির্বাচন কমিশনে (ইসি) নালিশ দিয়েও কোনো কাজ হচ্ছে না। উপরন্তু প্রতিপক্ষের মতো আচরণ করছে ইসিও। নির্বাচন উপলক্ষ্যে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হলেও কমিশন তাদের মাঠে না নামিয়ে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে ক্যাম্পে বসিয়ে রেখে ঐতিহ্যবাহী এই বাহিনীটির সুনাম নষ্ট করছে। এসব কারণে অংশগ্রহণমূলক এইআরও পড়ুন