Main Menu

বুধবার, নভেম্বর ৭th, ২০১৮

 

‘ডিজিটাল নিনজা’ নিয়ে এলো গ্রামীণফোন

স্টাফ রিপোর্টারঃ বেসরকারি মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন কোডার ও ডেভেলপারদের জন্য ‘ডিজিটাল নিনজা’ নামক প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন করেছে। মঙ্গলবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এক অনুষ্ঠানে এই প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কলসেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিংয়ের (বিএসিসিও) প্রেসিডেন্ট ওয়াহিদ শরীফ এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর। এছাড়াও অনুষ্ঠানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, তথ্যপ্রযুক্তিখাত এবং কোডার কমিউনিটির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। ডিজিটাল নিনজা উদ্যোগের লক্ষ্য গ্রামীণফোনের বিভিন্ন প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় ডিজিটাল দক্ষতার সন্নিবেশ রয়েছেআরও পড়ুন


পিরোজপুরে আ.লীগ কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ পিরোজপুর পৌর এলাকার বাইপাস সড়কের পাশে ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয় পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ওয়ার্ড সভাপতি মো. মিলন শেখ অভিযোগ করে বলেন, বুধবার ভোরে জামায়াত ও বিএনপির নেতাকর্মীরা এ আগুন দিয়েছে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি জানান, খবর শুনে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা মানব না

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ইরানের ওপর আরোপিত মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে ‘ভুল পদক্ষেপ’ হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন, আমরা এ নিষেধাজ্ঞা মানব না। মঙ্গলবার আঙ্কারায় পার্লামেন্টারি গ্রুপের বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিশ্বকে অস্থিতিশীল করার লক্ষ্যে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এরদোয়ান বলেন, আমরা একটি সাম্রাজ্যবাদী বিশ্বে বসবাস করতে চাই না। আন্তর্জাতিক আইন ও কূটনৈতিক শিষ্টাচার লঙ্ঘন করে ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করা হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার সকালের দিকে জাপান সফররত তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাসুভোগলু ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করায় যুক্তরাষ্ট্রের তীব্র নিন্দা জানান। তিনি বলেন, ইরানকে একঘরেআরও পড়ুন


৭ নপভেম্বর : বিপ্লব ও সংহতি দিবস

১৫ আগস্ট ১৯৭৫ থেকে শুরু হওয়া প্রায় আড়াই-তিন মাসের অস্থিতিশীল পরিস্থিতির শেষে এক অগ্নিগর্ভ মুহূর্তে, জিয়াউর রহমান বীর উত্তম সেনাবাহিনীর দায়িত্বের অতিরিক্ত, কিন্তু অবশ্যই পরোক্ষভাবে, পুরো দেশ ও জাতির নেতৃত্ব গ্রহণ করেন। বিভক্ত জাতিকে সংহত করার কঠিন প্রক্রিয়া শুরু করেন। ৭ নভেম্বরের বিকাল বেলা থেকেই পরবর্তী দেড়-দুদিনের চ্যালেঞ্জ ছিল, সৈনিকদের হাতে হাতে ঘুরছিল যেই অস্ত্র, সেই অস্ত্রকে অস্ত্রাগারে ফেরত আনা; পথে পথে ঘুরছিল যেই সৈনিক, সেই সৈনিকগণকে নিজেদের ব্যারাকে ফেরত আনা। জিয়াউর রহমান অত্যন্ত শান্ত কিন্তু দৃঢ় মনোভাব ও বক্তব্যের মাধ্যমে, সৈনিকদের ওপর অফিসারদের নিয়ন্ত্রণ পুনঃস্থাপনের কাজটি শুরু করেন। সৈনিকরাআরও পড়ুন


নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন দিতে হবে

স্টাফ রিপোর্টারঃ গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দ্বিতীয় দফা সংলাপের আগের দিন ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মহাসমাবেশে লাখো জনতার বুলুন্দ আওয়াজ ‘শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন নয়; নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন দিতে হবে’। জনতার সঙ্গে সুর মিলিয়ে বক্তারাও একই দাবি করে বলেছেন, জনগণের ভোটের অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠায় ৭ দফা দাবি মানতেই হবে। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। ইসি যদি আজ্ঞাবহ হয়ে পাতানো নির্বাচনের অপচেষ্টা করে তাদেরও প্রতিহত করা হবে। গণভবনে ৭ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় সংলাপে দাবি না মানলে ৮ নভেম্বর রাজশাহী অভিমুখে রোডমার্চ ও পরের দিন জনসভা করা হবে। পরবর্তিতে বরিশাল, খুলনা,আরও পড়ুন