Main Menu

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১st, ২০১৮

 

সারাদেশে বিএনপির গণঅনশন আজ

স্টাফ রিপোর্টারঃ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার একদিকে সংলাপের প্রস্তাব করছে, অন্যদিকে খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি করেছে। এই দুইটাই সাংঘর্ষিক। এটি কখনোই গণতান্ত্রিক কোনো আচরণের প্রতিফলন ঘটায় না। সংলাপের বিষয়ে আন্তরিকতা প্রমাণ করে না। আমরা সুস্পষ্ট করে বলতে চাই, দেশনেত্রীকে কারাগারে রেখে কোনো সংলাপ বা নির্বাচন কখনই ফলপ্রসূ হবে না। দেশনেত্রীর মুক্তি না হলে কোনো নির্বাচন অর্থবহ হবে না। সাত দফা দাবির পুরোটাই মেনে নিতে হবে। জনগণের ভোটাধিকার ফিরে পেতে চলমান আন্দোলন সুসংহত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বানও জানান বিএনপি মহাসচিব। বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে একআরও পড়ুন


সমসাময়িক রাজনীতি নিয়ে ড. কামাল ও কাদের সিদ্দিকীর বৈঠক

স্টাফ রিপোর্টারঃ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে নৈতিকভাবে সমর্থন জানিয়েছে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ। গতরাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসভবনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর সাথে বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের একথা জানিয়েছেন ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। আগামী শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে তার অবস্থান জানাবেন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। এর আগে রাত আটটা থেকে দশটা পর্যন্ত বৈঠক করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেন ও বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। বর্তমান সময়ের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট নিয়ে তাদের মধ্যে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে। আলোচনা শেষে নেতার নৈশভোজে মিলিত হন। বৈঠকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যান্যআরও পড়ুন


সুপ্রিম কোর্টে বিএনপি-আ.লীগ আইনজীবীদের হাতাহাতি

আইন-আদালত ডেস্কঃ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আদালত বর্জন কর্মসূচির মধ্যে বিএনপি ও আওয়ামী আইনজীবীদের দফার দফা হাতাহাতির ও হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে। এসময় উভয়পক্ষের মুখোমুখি অবস্থান নেন। গতকাল বুধবার আইনজীবী সমিতির সভাপতি কক্ষের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে উভয় পক্ষ সংবাদ সম্মেলন করেন। কর্মসূচীতে সরকারদলীয় আইনজীবীদের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধনের ঘোষণা দেন সমিতির বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। আদালতের প্রবেশ পথে তালা দিলে তা কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবীরা।এদিকে আদালত বর্জন কর্মসূচির মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভগের কার্যক্রম চলে। তবে তুলনামুলক আইনজীবীদের উপস্থিতি অন্যদিনের তুলনায় কম বলে জানা যায়। সকালআরও পড়ুন


স্বাস্থ্যসেবাকে জনগণের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল সরকারি হাসপাতালের যথাযথ রক্ষনাবেক্ষণের পাশাপাশি আগত রোগীদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক, নার্স এবং কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণকে সেবা দেয়াটা আপনাদের দায়িত্ব। পাশাপাশি এগুলোর যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ করতে হবে, পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। কারণ, এগুলোর নির্মাণে সরকারকে অনেক কষ্ট করে বাজেট বরাদ্দ করতে হয়েছে। স্বাস্থ্যসেবাকে জনগণের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিতে আমরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। কাজেই আমরা আশা করবো আপনারা চিকিৎসা সেবাটাকে আপনাদের কেবল পেশা হিসেবে নয় মহান দায়িত্ব হিসবে গ্রহণ করবেন। গতকাল সকালে রাজধানীর মহাখালীস্থ বক্ষব্যাধি হাসপাতাল প্রাঙ্গণে শেখ রাসেল গ্যাস্টোলিভারআরও পড়ুন