Main Menu

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০th, ২০১৮

 

আগামী নির্বাচন নিয়ে বিএনপির অবস্থান স্পষ্ট করবে আজ

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রায় ১১ মাস পর আবারও রাজধানীতে বড় ধরণের জনসভা করতে যাচ্ছে বিএনপি। দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করার পর এই প্রথম সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এই জনসভা। বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকার, সংসদ ভেঙে দেয়া, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবিতে বিএনপির আজকের জনসভা। দুপুর ২টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শুরু হবে জনসভাটি। সরকারের শেষ সময়ে দাবি আদায়ে মাঠে নামার ঘোষণা দেয়ায় আজকের জনসভাকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন রাজনৈতিক কর্মী ও বিশ্লেষকরা। আর গত ১ সেপ্টেম্বর ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে লাখো মানুষের উপস্থিতিতেআরও পড়ুন


এবার স্ত্রী হত্যার অভিযোগ ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ খাগড়াছড়ির গুইমারায় ছাত্রলীগ সভাপতি সাগর চৌধুরীর বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনে স্ত্রী পিংকী চৌধুরী (২৫) কে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার রাত ৮ টার দিকে খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলা সদরের দার্জিলিং টিলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধু পিংকী চৌধুরী গুইমারার দার্জিলিং টিলার বাসিন্দা ও গুইমারা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাগর চৌধুরীর স্ত্রী। ঘটনার পর থেকেই তার স্বামী সাগর চৌধুরী পলাতক রয়েছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই স্বামী সাগর চৌধুরী তারর স্ত্রী পিংকী চৌধুরীর উপর পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে। এই নিয়ে একাধিকবার স্তানীয়ভাবে শালিস-বৈঠকও হয়েছে। ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টারআরও পড়ুন


নির্বাচনকালীন সরকার বিষয়ে রয়টার্সকে যা বললেন মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টারঃ বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচনের আর মাত্র তিন মাস বাকি আছে, এই নির্বাচনে আমরা শক্তভাবে অংশগ্রহণ করতে চায়। শনিবার রয়টার্সকে দেয়া একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, রোববার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় আমাদের দাবিগুলো তুলে ধরব। এ দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- নির্বাচনের আগেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, নির্বাচনকালীন সময়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার এবং নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন। তিনি বলেন, একটি বড় দল হিসেবে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে আমাদের সকল প্রস্তুতি আছে কিন্তু নির্বাচনের পরিবেশ এবং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড প্রয়োজন, সেই পরিবেশ তো নেই।আরও পড়ুন


যা দেখবেন-শুনবেন তাই লিখবেন- সেতুমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টারঃ রাস্তা অবরোধ করে কোনো সভা-সমাবেশ করতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান সবার জন্য উন্মুক্ত। সেখানে প্রয়োজনে মুক্তমঞ্চ করে দেয়ার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। যার যা খুশি বলতে পারবেন। দরকার হলে আমরা মাইকও সেট করে দেব। কিন্তু রাস্তায় চেঁচামেচি করতে দেব না। আমরাও করব না, আপনাদেরও (বিএনপি) করতে দেব না। রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে শনিবার সকালে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে শেখ রাসেল শিশু-কিশোর পরিষদ। সমাবেশআরও পড়ুন