Main Menu

শুক্রবার, জুলাই ২০th, ২০১৮

 

লোকে লোকারণ্য বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টারঃ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির সমাবেশ শুরু হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে এ সমাবেশ শুরু হয়। মঞ্চে উপস্থিত আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, সেলিমা রহমান, উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, বিএনপি দক্ষিণের সেক্রেটারি কাজী আবুল বাশার, আব্দুস সালাম আজাদ, আমিরুল ইসলাম আলীমসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা। সমাবেশে সভাপতিত্ব করছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সমাবেশে যোগ দিতে আসা নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে নয়াপল্টনে। কাকরাইল মোড় থেকে ফকিরাপুল মোড় পর্যন্ত বিএনপির নেতাকর্মীদের ভিড়ে লোকেআরও পড়ুন


খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে এদেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না – মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টারঃখালেদা জিয়াকে জেলে রেখে এদেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। আর সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ২০টি আসনও পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার বিকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে এ সমাবেশের আয়োজন করে দলটি। সমাবেশ থেকে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসা ও সব রাজবন্দির মুক্তির দাবি জানানো হয়। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে জমা স্বর্ণ নিয়ে ফখরুল বলেন, এ সরকার বাংলাদেশ ব্যাংক শেষ করে দিয়ে এখন সেখানে রাখা স্বর্ণগুলোআরও পড়ুন


খালেদা জিয়ার আইনজীবীকে কেন বাংলাদেশে আসতে দেয়া হলো না?

লর্ড কার্লাইলকে বাংলাদেশে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। তাকে ভারতেও ঢুকতে দেওয়া হলো না। ভারতে ঢুকেও তাকে তৎক্ষণাৎ ফেরত যেতে হলো। এ যেন পত্র পাঠ বিদায়। বুধবার রাত ১০টায় ইংল্যান্ড থেকে তিনি দিল্লি বিমান বন্দরে নামেন। কিন্তু বিমান বন্দর থেকে তাকে বেরোতে দেওয়া হয়নি। বিমান বন্দরের ইমিগ্রেশনেই তাকে বসিয়ে রাখা হয়। লর্ড কার্লাইলের দেখাশোনার জন্য যে মহিলা বিমান বন্দরে উপস্থিত ছিলেন তিনি ইমিগ্রেশনকে বলেন যে, লর্ড কার্লাইলকে তো ভারত ভিসা দিয়েছে। সেই ভিসা নিয়েই তিনি দিল্লি এসেছেন। এখন তাকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না কেন? উত্তরে বলা হয় যে, তাকে ভিসা দেওয়াআরও পড়ুন


আপনার মৃত্যু অনিবার্য ।। অ্যাটর্নি জেনারেলকে চিঠি

আইন-আদালত ডেস্কঃ আবারও চিঠি পাঠিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি নম্বর -১১১৩) করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) রাতে অ্যাটর্নি জেনারেলের পক্ষে তার ব্যক্তিগত সহকারী কবির আহমেদ থানায় জিডি করেন। শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। জিডি সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে নাম-ঠিকানাবিহীন একটি চিঠি আছে। ওই চিঠির মাধ্যমে তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। চিঠিতে লেখা রয়েছে, ‘আইন নিজের গতিতে চলবে। আপনি যে বক্তব্য দিচ্ছেন তাতে মনে হচ্ছে শেখ হাসিনা আপনাকে কিনে ফেলেছে।আরও পড়ুন


ভল্টের স্বর্ণ নিয়ে অভিযোগ সত্য হলে এটি হবে বড় ধরনের বিপর্যয়

অর্থনৈতিক ডেস্কঃ বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে জমা স্বর্ণ নিয়ে সরকারের উচ্চপর্যায়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। সরকারের নীতিনির্ধারকরাও এ ব্যাপারে কথা বলতে শুরু করেছেন। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে তার অফিসে ডেকে নিয়ে কথা বলেছেন। রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরাও এসব বিষয়ে কথা বলছেন। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভল্টে থাকা স্বর্ণের মান তৃতীয় কোনো পক্ষ দিয়ে যাচাই করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের তৈরি একটি গোপনীয় তদন্ত রিপোর্টের আলোকে বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে জমা স্বর্ণের মান নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়। ওইআরও পড়ুন