Main Menu

বৃহস্পতিবার, মে ৩rd, ২০১৮

 

বাউফলে চিফ হুইপ মেয়র দ্বন্দ্ব চরমে ।। দুই বছরে ৪ নেতাকর্মী নিহত

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ বাউফলে স্থানীয় এমপি জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আসম ফিরোজ এবং বাউফল পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল হক জুয়েলের মধ্যে চলমান দ্বন্দ্ব চরম আকার ধারণ করেছে। সংঘর্ষ, সংঘাত লেগেই আছে চিফ হুইপ ও মেয়রের নেতৃত্বাধীন গ্রুপের মধ্যে। গত কয়েক বছরে এ দুই গ্রুপের মধ্যে অন্তত অর্ধশত সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে যাতে প্রাণ হারিয়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের ৪ নেতাকর্মী। এসব ঘটনায় করা পাল্টাপাল্টি মামলাগুলোর আসামিও স্থানীয় আওয়ামী লীগের প্রায় হাজারখানেক নেতাকর্মী। সর্বশেষ ২১ এপ্রিল দুই গ্রুপের সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছেন এক ইউপি সদস্য। এ ঘটনায় পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেআরও পড়ুন


যুক্তরাষ্ট্রে জর্জিয়ায় সামরিক বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ৫

আন্তর্জাতিক ডেকঃ যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় বুধবার একটি সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে এর ৫ আরোহী নিহত হয়েছেন। খবর সিএনএনের। দেশটির ন্যাশনাল গার্ড কর্তৃপক্ষ এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, প্রশিক্ষণে অংশ নেয়ার সময় বুধবার ডব্লিউ সি-১৩০ মডেলের ওই বিমানটি জর্জিয়ার সাভানা এলাকায় বিধ্বস্ত হয়। ন্যাশনাল গার্ডের মুখপাত্র পল ডাহলেন গণমাধ্যমকে জানান, প্রশিক্ষণ বিমানটি সাভানা থেকে আরিজোনার দিকে আসছিল। তবে কী কারণে এটি বিধ্বস্ত হয় তা তিনি বলতে পারেন নি।


সরকার সব সাজাপ্রাপ্তদের মন্ত্রীত্বে বসিয়ে রেখেছে- মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টারঃ দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, তারেক রহমান সাজাপ্রাপ্ত কোন মামলায়? যে মামলায় তিনি খালাস পেয়েছিলেন। তাকে খালাস দেয়ার অপরাধে ওই বিচারককে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে হয়েছে। বরং বর্তমান সরকারই সাজাপ্রাপ্তদের মন্ত্রীত্বে বসিয়ে রেখেছেন। বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তারেক রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব। সাবেক সংসদ সদস্য নাসিরউদ্দিন আহমেদ পিন্টুর তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সভার আয়োজন করে ‘নাসিরউদ্দিন আহমেদ পিন্টু স্মৃতি সংসদ।’ সংগঠনের সভাপতি সাইদ হাসানআরও পড়ুন


ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাক স্বাধীনতার ক্ষেত্রে ঝুঁকি সৃষ্টি করবে

স্টাফ রিপোর্টারঃ মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সব নাগরিকের বাক স্বাধীনতা ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিতের সাংবিধানিক অঙ্গীকার ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থী। প্রস্তাবিত আইনটি প্রণীত হলে শুধু মতপ্রকাশের ক্ষেত্রেই নয়, গণমাধ্যম কর্মীদের পাশাপাশি সব নাগরিকের মৌলিক মানবাধিকার চর্চার ক্ষেত্রে অধিকতর নিরাপত্তাহীনতার ঝুঁকি সৃষ্টি করবে। তাই এ আইনের ঝুঁকিপূর্ণ ধারাগুলো বাতিলের আহŸান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। গতকাল এক বিবৃতিতে দুর্নীতি বিরোধী আন্তর্জাতিক সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান এ আহŸান জানান। সংস্থাটির পক্ষ থেকে সংসদে জিডিটাল নিরাপত্তা আইন পাশের আগে ৯টি ধারা সংশোধন করার প্রস্তাবনা দেয়া হয়। টিআইবি বিবৃতিতে দেশের গণমাধ্যমকর্মীরা যাতে মুক্তআরও পড়ুন