Main Menu

শনিবার, ডিসেম্বর ৩০th, ২০১৭

 

পবিত্র ফাতেহা ইয়াজদাহম আজ

ধর্ম ডেস্কঃ আজ পবিত্র ১১ রবিউস সানী ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম। ফাতেহার অর্থ ওলী আউলিয়া তথা মনীষীগণের জন্য দোয়া। এদিন ওলীকুল শিরমণি তৎকালীন যুগের শ্রেষ্ঠ মুহাদ্দিস, মুফাসসির, ফকীহ, দার্শনিক, সর্বজন শ্রদ্ধেয় শিক্ষক, সুবক্তা, কাদেরিয়া তরিকার প্রতিষ্ঠাত হযরত শেখ মুহিউদ্দীন বড়পীর আবদুল কাদের জিলানীর (রহ.) ওফাত বার্ষিকী। এ দিবসটি সমগ্র বিশ্বে, বিশেষ করে এ উপমহাদেশের মুসলিমদের কাছে অতীব তাৎপর্যপূর্ণ। আল্লাহর রাসূলের (সা.) পর্দা করার পর সাহাবায়ে কেরাম ও তাবেয়ীনে ইমামদের সোনালী যুগে কোরআন-হাদিসের আলোকে দুনিয়া ছিল ঝলমল। পরবর্তীতে ভোগবাদী স্বার্থাম্বেষী ও বিজাতীয় ষড়যন্ত্রের ফলে উম্মতের ঐক্য নষ্ট হয়ে বিভিন্ন ফেরকার সৃষ্টি হয়। যার ফলে মুসলমানদের বিজয়েরআরও পড়ুন


সাম্প্রতিক নির্বাচনগুলোতেও রকিব মার্কা নির্বাচনের পূণরাবৃত্তি হলো

স্টাফ রিপোর্টারঃ স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামী সশস্ত্র ক্যাডারদের পুরনো তান্ডব আবারও ফুটে ওঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক নির্বাচনগুলোতেও ভোটের আগে রাতেই ব্যালট বাক্স ভর্তি, ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে বাধা, বিএনপি প্রার্থীদের উপর হামলার মাধ্যমে রকিব মার্কা নির্বাচনের পূণরাবৃত্তি হলো। গতকাল (শুক্রবার) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী বলেন, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদ ও জেলা পরিষদের ১২৭টি এলাকায় বিভিন্ন পদে সাধারণ, স্থগিত নির্বাচন ও উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ গত বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী সশস্ত্র ক্যাডারদের সে পুরানোআরও পড়ুন


আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন কারও জন্য অপেক্ষা করবে না- সেতুমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন কারও জন্য অপেক্ষা করবে না। বিএনপি না এলেও যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তিনি জানান, প্রথম দফায় প্রত্যাবাসনের জন্য এক লাখ রোহিঙ্গার নামের তালিকা মিয়ানমারের কাছে হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন। এরপর তিনি উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে জেলা ছাত্রলীগ পরিচালিত একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিদর্শন এবং বিনা মূল্যে ওষুধ বিতরণ করেন। রোহিঙ্গাদের ‘সম্মানের সঙ্গে আর নিরাপত্তা নিশ্চিত করে’ তাদের স্বদেশে প্রত্যাবসনের জন্য সরকার পদক্ষেপআরও পড়ুন