Main Menu

বুধবার, ডিসেম্বর ৬th, ২০১৭

 

জোকস ।। কিভাবে একটা পিঁপড়াকে মারতে হয়?

স্বামী ঘরে এসে মারধর করে মহিলা : আমার স্বামী ঘরে এসেই আমাকে মারধর শুরু করে দেয়। সাধু বাবা : সে যখনই বাসায় আসবে; তখনই এই তাবিজ তোর দাঁতের নিচে লাগিয়ে দিবি! পাঁচ দিন পর- মহিলা : বাবাজি তাবিজ দাঁতের নিচে লাগানোর পর এতো ফায়দা হলো যে, সে এখন আমাকে কিছুই বলে না। সাধু বাবা : এটা তাবিজের ফল না, এটা তোর মুখ বন্ধ রাখার ফল। পিঁপড়া মারার নিয়ম পরীক্ষায় প্রশ্ন এলো- কিভাবে একটা পিঁপড়াকে মারতে হয়? এক ছেলে উত্তর লিখেছে- প্রথমে চিনির সাথে মরিচের গুড়া মিশিয়ে রেখে দিতে হবে। পিঁপড়াআরও পড়ুন


পিরোজপুরে ছাগল চুরির দায়ে আ’লীগ নেতার জরিমানা

বরিশাল ব্যুরোঃ পিরোজপুরের নাজিরপুরে ছাগল চুরির অভিযোগে লোকমান বেপারি নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও শারীরিক শাস্তি দেয়া হয়েছে। সোমবার রাতে সালিশ বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সে শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলে ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সুনীল হালদার সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। ইউপি চেয়ারম্যান উত্তম কুমার মৈত্রের সভাপতিত্বে ওই  ইউনিয়নের বন্দরের দলীয় কার্যালয়ে এ সালিশ  বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশ বৈঠক ও ইউপি চেয়ারম্যানের দেয়া তথ্য সূত্রে জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের উদয়তারা গ্রামের বিধবা ফিরোজা বেগমের (৬০) একটি গর্ভবতী ছাগল ১ নভেম্বরআরও পড়ুন


রোহিঙ্গা নির্যাতনের জন্য মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের প্রস্তাব পাশ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নের নিন্দা ও তাদেরকে নাগরিক অধিকার দিয়ে ফেরত নেয়ার আহ্বান জানিয়ে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব পাস করেছে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল। মঙ্গলবার জেনেভায় সংস্থার এক বিশেষ অধিবেশনে বাংলাদেশের উত্থাপিত প্রস্তাবটির পক্ষে ৩৩টি ভোট পড়ে। চীন ও ফিলিপাইনসহ তিনটি দেশ প্রস্তাবের বিপক্ষে আর ভারতসহ ৯টি দেশ ভোটদানে বিরত ছিল। দুটি দেশ ছিল অনুপস্থিত। ৪৭টি দেশ কাউন্সিলের সদস্য। ‘মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠী ও অন্য সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার পরিস্থিতি’ শীর্ষক কাউন্সিলের ২৭তম বিশেষ অধিবেশনে আলোচনা শেষে প্রস্তাবটি পাস হয়। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো এ খবর দিয়েছে। ভোট শেষে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমওআরও পড়ুন


আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ এবং বেকসুর খালাস পাওয়ার যোগ্য- খালেদা জিয়া

আইন আদালত ডেস্কঃ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের সময় পবিত্র আল-কুরআনের সুরা নিসার ১৩৫ নম্বর আয়াতের বাংলা তরজমার পাঠের মধ্য দিয়ে বক্তব্য শেষ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থন করে দেয়া বক্তব্যে শেষে খালেদা জিয়া বলেন, আমি আমার বক্তব্য শেষ করছি পবিত্র কুরআনের সুরা নিসার ১৩৫ নং আয়াতের বাংলা তরজমা উল্লেখ করে। বাংলা তরজমায় তিনি বলেন, : “হে ঈমানদারগণ, তোমরা ন্যায়ের উপর প্রতিষ্ঠিত থাক; আল্লাহর ওয়াস্তে ন্যায়সঙ্গত সাক্ষ্যদান কর, তাতে তোমাদের নিজের বা পিতা-মাতার অথবা নিকটবর্তী আত্মীয়-স্বজনের যদি ক্ষতি হয় তবুও। কেউ যদি ধনীআরও পড়ুন


পুলিশ- বিএনপি সংঘর্ষ ।। গ্রেফতার ভাংচুর অগ্নিসংযোগ

স্টাফ রিোর্টারঃ দুর্নীতির মামলায় আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে খালেদা জিয়ার গাড়িবহরের পেছনে থাকা বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া চলে পুলিশ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে। বিক্ষুব্ধ কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জের পাশাপাশি টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এতে আহত হয়েছেন বিএনপির প্রায় ৩০ নেতাকর্মীসহ একাধিক পুলিশ সদস্য। সংঘর্ষ চলার সময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা বেশকিছু যানবাহন ভাংচুর করে। এ সময় এক ট্রাফিক সার্জেন্টের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। মঙ্গলবার রাজধানীর হাইকোর্ট সংলগ্ন কদম ফোয়ারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এনপির নেতারা বলেছেন, পুলিশ বিনা উসকানিতেআরও পড়ুন