Main Menu

শুক্রবার, নভেম্বর ৩rd, ২০১৭

 

সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুর রহমান বিশ্বাসের ইন্তেকাল

স্টাফ রিপোর্টারঃ  সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুর রহমান বিশ্বাস গতকাল শুক্রবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন। তার মেঝ ছেলে মাহমুদ হাসান বিশ্বাসের বরাত দিয়ে বিএনপির মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বনানীর গ্র্যান্ড প্রেসিডেন্ট প্যালেস বাসভবন থেকে সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুর রহমান বিশ্বাসকে গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছিল। এরপর রাত ৮টা ৪০ মিনিটে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুর রহমান বিশ্বাসের ইন্তেকালের খবরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের বিভিন্ন স্তরেরআরও পড়ুন


পটুয়াখালীর আ.লীগ নেতা খান মোশারফের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

স্টাফ রিপোর্টারঃ  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খান মোশারফ হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। বৃহস্পতিবার এক শোক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধ ও আওয়ামী লীগে মোশারফ হোসেনের অবদান শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে বলেন, ‘তার মৃত্যুতে আওয়ামী লীগ একজন নিবেদিতপ্রাণ নেতাকে হারাল’। শেখ হাসিনা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। পটুয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন দীর্ঘ রোগভোগের পর বুধবার রাতে ভারতের চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন।


আমাকে দন্ড দিয়ে কাশিমপুর কারাগারে পাঠাতে চায় সরকার- খালেদ জিয়া

আইন-আদালত ডেস্কঃ  বিএনপির চেয়ারপাসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, আমার মাঝেমধ্যে মনে হয়, শেখ হাসিনার কাছে জাদুর কাঠি আছে। সেই জাদুর কাঠির ছোঁয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতি-অনিয়ম-চাঁদাবাজিসহ সব মামলা সরকারে আসার পর উঠে গেছে অথবা খারিজ হয়ে গেছে। আমাদের কারো হাতেই তেমন কোনো জাদুর কাঠি নেই। কাজেই আমাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলো সচল হয়েছে এবং আরো নতুন নতুন মামলা হয়েছে। অথচ দেশে কত গুরুত্বপূর্ণ মামলা বছরের পর বছর ঝুলছে। শুধু আমার বিরুদ্ধে মামলাগুলো রকেটের গতিতে ছুটে চলছে। যেন কেউ পেছন থেকে তাড়া করছে শিগগির শেষ কর, একটি রায় দাও। অনেক মন্ত্রীদের বলতে শুনেছি,আরও পড়ুন


জেলহত্যা দিবস আজ

স্টাফ রিপোর্টারঃ আজ ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস। পচাঁত্তরের পনেরই আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর দ্বিতীয় কলংক জনক অধ্যায় এই দিনটি। পনেরই আগস্টের নির্মম হত্যাকান্ডের পর তিন মাসেরও কম সময়ের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী ও চার জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, এএইচএম কামারুজ্জামান এবং ক্যাপ্টেন মনসুর আলীকে এই দিনে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এর আগে এই চার জাতীয় নেতাকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। এ নির্মম ও বর্বরোচিত ঘটনার পরদিন তৎকালীন উপ-কারা মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজন) কাজী আবদুল আউয়াল লালবাগ থানায় একটিআরও পড়ুন


রাজধানীর বাড্ডায় বাবা-মেয়ে খুন

স্টাফ রিপোর্টারঃ কাকরাইলে মা-ছেলে খুন হওয়ার ১২ ঘণ্টা না পেরোতে রাজধানীতে ফের জোড়া খুন। এবার বাড্ডায় হত্যার শিকার হলেন বাবা ও মেয়ে। বুধবার গভীর রাতে বাড্ডা হোসেন মার্কেটের পেছনে ময়নারটেক এলাকার একটি বাসায় নৃশংস এ খুনের ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ বাবা জামিল শেখ (৪১) ও তার স্কুল পড়–য়া মেয়ে নুসরাতের (৯) লাশ উদ্ধার করে। পুলিশের সন্দেহ, স্ত্রীর পরকীয়াকে কেন্দ্র করে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে। এজন্য জামিল শেখের স্ত্রী আরজিনা বেগমকে আটক করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরজিনা বেগমের দাবি, ডাকাতরা তার স্বামী ও মেয়েকে খুন করেছে।আরও পড়ুন