Main Menu

রবিবার, মার্চ ৫th, ২০১৭

 

শ্রীলংকার বিপক্ষে টাইগারদের প্রথম টেস্ট, শততম টেস্ট ইমরুলের

খেলাধুলা ডেস্কঃ ইনজুরির কারণে ভারতের বিপক্ষে ঐতিহাসিক টেস্ট খেলতে পারেননি বাংলাদেশের ওপেনার ইমরুল কায়েস। তবে বাংলাদেশের শততম টেস্ট ম্যাচে মাঠে নামতে পারেন ইমরুল। আগামী ৭ মার্চ শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে মাঠে নামবে টাইগাররা। ওই টেস্টকে সামনে রেখে গত ২১ ফেব্রুয়ারি ১৬ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। সেই স্কোয়াডে ছিলেন না ইমরুল কায়েস। অবশ্য দল ঘোষণার সময়ই জানানো হয়েছিল- বিসিএলে ইমরুল কায়েসের ফিটনেস দেখে তাকে দ্বিতীয় টেস্টের জন্য খেলানোর চিন্তা করা হবে। এরই মধ্যে বিসিএলে একটি সেঞ্চুরিও তুলে নেন ইমরুল। সেই সুবাদে বাংলাদেশের শততম টেস্টে খেলার সুযোগ পেতে পারেনআরও পড়ুন


যৌবন,সৌন্দর্য ও স্মার্টনেস ধরে রাখতে

জীবনধারা ডেস্কঃ তারুণ্য বা যৌবন ধরে রাখতে কে না চায়। নারী-পুরুষ সবাই নিজের সৌন্দর্য ও স্মার্টনেস ধরে রাখতে চেষ্টা করেন। বিশেষ করে নারীরা এ বিষয়ে বেশি আগ্রহী। চাইলেই কী হবে? বয়স বাড়ে আপন গতিতে। সময়ের সঙ্গে যুদ্ধ করে নিজেকে তরুণ দেখানোর জন্য কত ধরনের চেষ্টা না মানুষ করে চলেছেন যুগ যুগ ধরে। কেউ কেউ জিম সেন্টার বা স্লিম পয়েন্টে দৌড়াচ্ছেন। কেউবা আবার ডাক্তারের পিছু পিছু ছুটছেন। কেউ সফল হচ্ছেন। কেউ হরদম চেষ্টা করে যাচ্ছেন। যারা মন থেকেই তারুণ্য ধরে রাখতে চান তাদের জন্য কিছু পরামর্শ : এ প্রসঙ্গে ডায়েটিশিয়ান সেলিনাআরও পড়ুন


ক্ষুদ্র স্বার্থ ও ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের আলেম সমাজকে এগোতে হবে -এম এম বাহাউদ্দীন

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি আলহাজ্ব এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেছেন, এখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আমাদের আলেম-ওলামাদের ঐক্য। এজন্য ক্ষুদ্র স্বার্থ ও ভেদাভেদ ভুলে যেতে হবে। ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের আলেম সমাজ এবং রাজনৈতিক নেতৃত্ব এগোতে পারলে আগামী দিনে বাংলাদেশ শুধু বিশ্বে প্রভাবশালী মুসলিম রাষ্ট্রই নয়, এই অঞ্চলের নেতৃত্ব দিবে। ৯২ ভাগ মুসলমানের এই দেশ সে যোগ্যতা রাখে। সঠিকভাবে চললে মুসলিম বিশ্বের নেতৃত্ব আমরাই দেব।  গতকাল (শনিবার) মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি আয়োজিত ঐতিহাসিক এশায়াত সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বিজ্ঞানকে অস্বীকার করলে চলবে না। কাজে লাগাতে হবে। বিজ্ঞানেরআরও পড়ুন


ছাত্ররাজনীতিকে সঠিকপথে পরিচালিত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে-রাষ্ট্রপতি

স্টাফ রিপোর্টারঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন না হলে বাংলাদেশে ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব শূন্যতা সৃষ্টি হবে বলে আশংকা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির চ্যান্সেলর এবং রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, ডাকসু নির্বাচন না হলে বাংলাদেশে ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব শূন্যতা সৃষ্টি হবে। এ কারণে ডাকসু নির্বাচন ‘ইজ এ মাস্ট’ (হতেই হবে)। শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০তম সমাবর্তন উপলক্ষে দেয়া বক্তৃতাকালে রাষ্ট্রপতি একথা বলেন। ছাত্ররাজনীতির গুরুত্ব তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশ ও জাতির উন্নয়নে রাজনৈতিক নেতৃত্বের বিকল্প নেই। গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একে অপরের পরিপূরক। একটি ছাড়া অপরটি অচল। তাই গণতন্ত্রের ভিতকে মজবুত করতে হলে দেশেআরও পড়ুন


অর্থমন্ত্রী এমন একজনের প্রশংসা করলেন,যার কারনে আমেরিকা থেকে বারবার আমাকে থ্রেট করা হয়-প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টারঃ দারিদ্র্য বিমোচনে ক্ষুদ্র ঋণের ভূমিকার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমালোচনায় পড়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গতকাল শনিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ক্ষুদ্র ঋণ নয়, সরকারের পদক্ষেপের ফলেই দারিদ্র্য বিমোচন হচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের (এসডিএফ) এক অনুষ্ঠানে দারিদ্র্য বিমোচনে ক্ষুদ্র ঋণের প্রশংসা করেছিলেন মুহিত। তিনি বলেছিলেন, এক সময় এদেশে ৭০ শতাংশ মানুষ দরিদ্র ছিল। সেখান থেকে এখন ২২ শতাংশে নেমে এসেছে। গ্রামীণ ব্যাংক এ ভূমিকাটি সাফল্যের সঙ্গে পালন করেছে। অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের সূত্র ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আমার দুঃখ লাগে সেদিনআরও পড়ুন